ঢাকা, বুধবার ৪ঠা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

পাবনায় জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধ ফুল বাগান নষ্ট ও বসতঘরে লুটপাটের অভিযোগ

 নিউজ রুমঃ Bijoy Bangla BD 24. COM

 প্রকাশিত: এপ্রিল ১৮, ২০২০, ৭:৪৬

৭৩৩ বার পঠিত

পাবনা প্রতিনিধি: পাবনায় জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে বসতঘরের তালা ভেঙে লুটপাট ও সাজানো ফুল বাগানের বাউন্ডারি সহ ফুলের গাছ কেটে এবং ফুলের টব ভেঙে জীবননাশের হুমকির অভিযোগে পাবনা সদর থানার লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। অভিযোগের ভিত্তিতে জানা যায় পাবনা সদর উপজেলার চরতারাপুর ইউনিয়নের তারাবাড়িয়া গ্রামের রাজা জোয়াদ্দার ও বাদশা জোয়াদ্দারের সাথে দীর্ঘদিন যাবত জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছিল তাদের ই ছোট ভাই আজিজুর রহমান লিটনের। লিটন চাকরির কারণে বাহিরে থাকায় তার বসতঘরের তালা ভেঙে লুটপাট ও সাজানো ফুল বাগানের বাউন্ডারি ও ফুলের টব ভেঙে নিকটবর্তী পুকুরে ফেলে দেওয়া হয়েছে বলে পাবনা সদর থানায় গত ১৫ এপ্রিল-২০২০ ইং তারিখে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে আজিজুর রহমান লিটনের বাড়ির পাহারাদার জাহাঙ্গীর আলম। এঘটনায় এ প্রতিবেদককে আজিজুর রহমান লিটন জানান সাইদুর রহমান বাদশা জোয়াদ্দার মা’য়ের নামে বাড়ীর পেছনে ভিটা জমি জালিয়াতি করে লিখে নিয়েছিলো,পরবর্তীতে মা জানতে পেরে জমি ফিরিয়ে পেতে আদালতে মামলা করে। সেই জমি আদালত সত্যতা যাচাই বাছাই করে সাক্ষী দের সাক্ষ্য গ্রহণ করে মহামান্য আদালত মা’য়ের জমি ফিরিয়ে দিতে রায় প্রদান করেন। পরবর্তীতে বাদশা মা’য়ের প্রতি ক্ষিপ্ত হয়ে ছানি মামলা করে, ৪ বছর মামলা চলার পরে ২০২০ সালে পূর্ণ রায় মা’য়ের পক্ষে মহামান্য আদালত রায় ঘোষণা করেছে,বাদশা জোয়াদ্দার মৃত মায়ের বিরোধে আবার আপিল করেছে।৫ ভাইয়ের নামের পুকুর বাদশা জোয়াদ্দার ও রাজা জোয়াদ্দার অন্যান্য ভাইদের না জানিয়ে ৬ বছরের জন্য পুকুর লীজ রেখেছে এবং অন্যান্য ভাইদের লীজের টাকা আত্নসাৎ করেছে,বাদশা জোয়াদ্দারের জামাই বাদশার পরামর্শে রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের টাকা আত্নসাত করেছে (বালিশ কান্ড)। বর্তমানে তার জামাই ঢাকা জেল হাজতে রয়েছে এবং জামাইয়ের দূর্নীতির ও আত্মসাতের টাকা বাদশা জোয়াদ্দার কাছে রক্ষিত আছে,সেই টাকা দিয়ে বাদশা জোয়াদ্দার ইটের ভাটা চালানোর উদ্যোগ নিয়েছে, তারা বাড়িয়া গ্রামের ফুল খান ইটের ভাটার পার্টনার,ফুল খানের টাকাও আত্নসাৎ করার কারণে মাঝে মধ্যে তাদের মধ্যে ঝগড়া বিবাদ সৃষ্টি হয়। বাদশা জোয়াদ্দার খুবই চতুর প্রকৃতিক লোক নিজের সুবিধার জন্য ও রাজনৈতিক ভাবে টাকা ইনকাম সহ প্রভাব বিস্তার করার জন্য ঘন ঘন দল পরিবর্তন করে চলেছে জাসদ এবং জাতীয় পার্টি ও বর্তমানে আওয়ামী লীগ রাজনীতির সাথে জড়িত রয়েছে। আমার অন্য ভাই আব্দুর রাজ্জাক রাজা জোয়াদ্দার মা জীবিত থাকা অবস্থায় মায়ের ঘর এবং ঘরের পাশের জায়গা দখল করার চেষ্টা করে,মা’য়ের প্রতি বিভিন্ন রকম নির্যাতন করেছে, মা’য়ের সেবার লোক কে চাকু এবং লাঠি সোটা দিয়ে তাড়া করেছে, মা কে ভাত খাওয়া থেকে বঞ্চিত করেছে, তখন আমার মেজ বোন শাহানা বাসা (সুজানগর উপজেলার) থেকে মা’য়ের ভাত দেওয়া হতো,
রাজা মা’য়ের বিলের জমি বাবা- মা কে না জানিয়ে গোপনে বর্গাদার এর কাছে থেকে ফসল সংগ্রহ করতো, কুলাঙ্গার রাজা জোয়াদ্দার সবসময় মায়ের মৃত্যু কামনা করতো,সে জন্য কোনোদিন মা’য়ের চিকিৎসা করে নি, রাজা জোয়াদ্দার ছোটবেলা থেকেই চোর ছিলো, রাজা ক্লাস টু পর্যন্ত পড়ালেখা করেছে, পরবর্তীতে লেখাপড়া না করে রাজা কিছু বন্ধু বান্ধব নিয়ে জঙ্গলে তাস -পাশা খেলতো এবং ঘরের চাল,ডাল,মশুর ইত্যাদি ফসলাদি ঘর থেকে চুরি করে বিক্রি করতো, এভাবে বেশ কয়েক বছর চলতে থাকে, তখন মা অবস্থা বেগতিক দেখে বংশের সম্মান রক্ষার জন্য তাকে ছোটবেলায় মা’য়ের এক আত্মীয়ের মাধ্যমে লিভার ব্রাদার্স এ চাকরী দেয়,তাকে প্রতিষ্ঠিত করার সম্পূর্ণ অবদান আমার মা’য়ের,সেই মা’কে সম্পদের লোভে ইচ্ছাকৃত ভাবে বিভিন্ন নির্যাতনের মাধ্যমে হত্যা করতে চেয়েছিলো কুলাঙ্গার। এব্যাপারে রাজা জোয়াদ্দার ও বাদশা জোয়াদ্দারের সাথে যোগাযোগ করলে তারা এসকল ঘটনা অস্বীকার করেছেন। পাবনা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নাছিম আহমেদ জানান অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সর্বশেষ
অপরাধ বিভাগের সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত


Copyright ©  BijoyBanglaBD24.com                                 Developed by VIP TECHNOLOGY